প্রচ্ছদ

সৌমিত্র দেব: আমাদের সময়ের নায়ক

20 January 2018, 19:19

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 295 times.

আইরিন খানঃ জন্ম ২৭ জুলাই ১৯৭০ মৌলভীবাজার শহরে ।পিতামহ প্রমোদ চন্দ্র দেব ছিলেন স্বনামধন্য আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ । বাবা সুশীতল দেব ছিলেন সরকারি চাকরিজীবী ।মা মায়া দেব ছিলেন গৃহিণী ।তিনি চার বোনের একমাত্র ভাই ।শর্বরী ,শর্মিলা ,শর্মিষ্ঠা ও সুতপা । বোনেরা সবাই উচ্চশিক্ষিত ।
সৌমিত্র দেব মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চবিদ্যালয় থেকে এস এস সি,মৌলভীবাজার সরকারি মহাবিদ্যালয় থেকে এইচ এস সি এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন ।বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউট থেকে পেয়েছেন সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা ।এ ছাড়া তিনি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিকল্পনা, প্রশাসন ও ব্যাবস্থাপনায় গ্র্যাজুয়েট ট্রেনিং নিয়েছেন । বাংলা একাডেমির তরুণ লেখক প্রকল্পে চতুর্থ ব্যাচে তিনি প্রশিক্ষণ নিয়েছেন ।সেখান থেকে প্রকাশিত হয়েছে তার কবিতার বই- শময়িতাদের বাড়ি । বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউট,এশিয়াটিক সোসাইটি ও বাংলা একাডেমির বিভিন্ন গবেষনা কর্মে তিনি কাজ করেছেন । বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থে তিনি একজন লেখক । ৪১ টি প্রকাশিত গ্রন্থের লেখক সৌমিত্র দেব পৃথিবীর বহু দেশে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন । ২০০৫ সালে তিনি ১০ম উত্তর আমেরিকান বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্মেলনে অংশ নেন । এ ছাড়া চীন,মালেশিয়া , নেপাল ও ভারতে আরো বেশ কিছু অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে উজ্জ্বল করেছেন দেশের ভাবমূর্তি । সাহিত্যের প্রায় সকল শাখায় বিচরণ করলেও লোক সাহিত্যে তার বিশেষ অবদান আছে ।তার উদ্যোগে ঢাকায় ২০০৯ সালে অনুষ্ঠিত হয় প্রথম জাতীয় হাছন উৎসব । লোক সাহিত্যে তার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বই – মরমী কবি হাছন রাজা ও তার জীবন দর্শন ।তার অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বইইয়ের মধ্যে আছে ডিজিটাল বাংলাদেশ ও বিকল্প গণমাধ্যম,অজবীথি ,বন পরযটক, নীল কৃষ্ণচূড়া , পূর্ব থেকে পশ্চিমে ,জলে স্থলে অন্তরীক্ষে, হিমালয় কন্যার হাসি,তুমুল তুষার বৃষ্টি , আগুন পিপাসা, পাথরের চোখ প্রভৃতি ।সৌমিত্র দেব তার পেশা হিসেবে সাংবাদিকতা ও লেখালেখিকেই বেছে নিয়েছেন । কাজ করেছেন জাতীয় দৈনিক প্রথমআলো ও মানবজমিনে । বর্তমানে তিনি অনলাইন গণমাধ্যম রেডটাইমস ডট কম ডট বিডির প্রধান সম্পাদক ।অভিনয় ও আবৃতি তার নেশা ।সৌমিত্র দেব অভিনীত প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র -নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছে । সম্প্রতি তিনি শিল্পকলা একাডেমির অর্থায়নে নির্মিত রবীন্দ্রনাথের ডাকঘর চলচ্চিত্রে একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন ।বাংলাদেশ গণগ্রন্থাগার আয়োজিত একুশে প্রতিযোগিতায় তিনি কবিতা বিভাগে চট্রগ্রাম বিভাগীয় পর্যায়ে প্রথম হয়েছিলেন । কবিতার জন্য তিনি পেয়েছেন বাংলাদেশ রাইটার্স ফাউন্ডেশন পদক ।

Share

Comments

comments

Shares