প্রচ্ছদ


মৌলভীবাজারে ২৫০ শয্যা হাসপাতালের দুই ডাক্তারে মধ্যে কিলাকিলি

18 February 2017, 18:58

নিজস্ব প্রতিবেদক
Share
This post has been seen 301 times.


মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের অপরেশন থিয়েটারে (ওটি) সার্জারি বিভাগের কনসালটেন্ট ডাঃ আবু ইমরান ও অর্থপেডিক্সের চিকিৎসক ডাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুনের মধ্যে রুগির চিকিৎসাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে কিলাকিলির ঘটনা ঘটেছে। শনিবার (১৮ ফেব্র“য়ারি) দুপুর সারে বারোটার দিকে হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে রুগির সামনেই এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় অপেরেশন থিয়েটারে অবস্থানরত রুগিদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পরে। ঘটনার বিস্তারিত তথ্য জানতে ফোনে যোগাযোগ করা হয় ডাঃ আবু ইমরানের সাথে, তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মোটর সাইকেল এক্সিডেন্টে আক্রান্ত এক রুগীকে ভর্তি করানো হয় হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে,এর পর যেহেতু ডাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন হচ্ছেন অর্থপেডিক্সের চিকিৎসক তাই তার কাছে রুগীর যথাযত চিকিৎসার জন্য সহায়তা চাওয়া হয়,কিন্তু তিনি সহযোগীতা দিতে একধরনের অপরাগ,এক পর্যায়ে তার সাথে এনিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। তিনি আরো জানান, অর্থপেডিক্সের অনেক উন্নত যন্ত্রপাতি থাকার পরও রুগীকে চিকিৎসা দেয়া হয়না ডাক্তারদের অবহেলায়, তাই বিষয়টি আমি মেনে নিতে পারিনি । তবে ডা: আব্দুল্লাহ আল মামুনের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। এদিকে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা: পার্থ সারথী দত্ত কাননগো ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আজ দুপুরে হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে দুই ডাক্তারের মধ্যে হাতাহাতি নয় ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটেছে,তবে এবিষয়ে আমরা ব্যবস্থা নেব।
উল্লেখ্য: নানান অনিয়ম ও দুর্নীতির কারনে গত কয়েকদিন পূর্বে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ ফোরাম মৌলভীবাজার জেলা শাখার আয়োজনে শহরের চৌমুহনা পয়েন্টে এক দীর্ঘ মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক মোঃ তোফায়েল ইসলাম বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে।

Share