প্রচ্ছদ


বিরাট-আনুশকা আধ্যাত্মিক মানুষ!

18 December 2017, 16:16

নিজস্ব প্রতিবেদক
ছবি-সংগৃহীত
This post has been seen 252 times.

অনেক গোপনীয়তা আর নাটকীয়তার মধ্য দিয়েই সাত পাঁকে বাঁধা পড়লেন ভারতের তারকা জুটি কোহলি ও আনুশকা। ইতালির তুস্কানিতে আড়ম্বরপূর্ণ আয়োজনের মধ্যে ১১ ডিসেম্বর বিয়ে করেছেন তারা। গোপনীয়তার ব্যাপারে শুধু তারাই নন, তাদের ওয়েডিং প্ল্যানাররাও ব্যাপক গোপনীয়তা বজায় রেখেছেন। এমনকি পুরো প্রক্রিয়া চলাকালে ওয়েডিং প্ল্যানার দেবিকা নারাইন কখনোই কোহলি ও আনুশকার নাম মুখে আনেননি। তাদের ডাকতেন বিয়ের কন্যা ও পাত্র বলে। সেই দেবিকাই এবার জানালেন অতিথিদের জন্য বিশেষ উপহারের কথা। দেবিকা এক সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘আনুশকা ও বিরাট (কোহলি) খুবই আধ্যাত্মিক মানুষ। এই বিষয়টা অনেকেই জানেন না। আনুশকার পরিকল্পনাতেই পুরো অনুষ্ঠান হয়েছে এবং তিনি সব কাজই নিয়ম মেনে করেছেন। তারা রুমির কবিতার অনেক বড় ভক্ত। সকল অতিথির জন্য রুমি সমগ্র দিয়েছেন উপহার হিসেবে।’ ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও বলিউড তারকা আনুশকা শর্মার বিয়ের এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও এখনও তাদের নিয়ে ভক্তদের আগ্রহ কমেনি একবিন্দু। এবার জানা গেল, বিরুশকার বিয়েতে আগত অতিথিদের জন্যও বিশেষ উপহারের ব্যবস্থা ছিল।

ছবি সংগৃহীত

মাত্র ১৪ জনের উপস্থিতির এই বিয়েতে প্রত্যেককে পারস্য কবি রুমির একটি করে বই উপহার দেওয়া হয়েছে। ত্রয়োদশ শতাব্দীর বিখ্যাত কবি ছিলেন এই রুমি। পুরো নাম জালাল উদ্দিন মোহাম্মদ রুমি। তিনি ছিলেন আধ্যাত্মিক কবি। কোহলি ও আনুশকা উভয়েই রুমির ভীষণ ভক্ত। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম প্রকাশিত, কোহলি-আনুশকা দুজনেই খুব ধর্মপ্রাণ। যা সাধারণের কাছে অনেকটাই অজানা। নিজেদের বিয়ের অনুষ্ঠানে অতিথিদের রুমি সমগ্র উপহার দেওয়াটা তাদের কোমল মনের বহিঃপ্রকাশেরই একটা অংশ। একইসঙ্গে রুমি ও তার কবিতার প্রতি দুজনের ভালো লাগারও প্রকাশ ঘটেছে।

 


Shares