প্রচ্ছদ


প্রাথমিকে পাসের হার ৯৫.১৮ শতাংশ

30 December 2017, 14:59

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 241 times.

৩০ ডিসেম্বর শনিবার গণভবনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে এই ফলাফল হস্তান্তর করেন, চলতি বছরের প্রাথমিক ও এবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। প্রাথমিকে এবার ৯৫ দশমিক ১৮ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। আর ইবতেদায়ীতে পাস করেছে ৯২ দশমিক ৯৪ শতাংশ পরীক্ষার্থী।সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে বেলা ১টায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী এবং দুপুর ২টায় শিক্ষামন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করে ফলাফলের বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরবেন।  আজ জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফলাফলও প্রকাশ হবে। চলতি বছরের ১ নভেম্বর বুধবার সকাল ১০টায় দেশের দুই হাজার ৮৩৪টি একযোগে শুরু হয় জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা। এতে ২৪ লাখ ৬৮ হাজার ৮২০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন। দেশের বাইরে মোট ৯টি কেন্দ্রে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নেন ৬শ’ ৫৯ জন পরীক্ষার্থী।

ফলাফলে দেখা যায়, প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়েছে দুই লাখ ৬২ হাজার ৬০৯ শিক্ষার্থী। গত ২০ নভেম্বর রোববার দেশের সাত হাজার ২৬৭টি ও বিদেশের ১২টি কেন্দ্রে একযোগে শুরু হয় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা-২০১৭। এতে অংশ নেন ৩০ লাখ ৯৬ হাজার ৭৫ জন ক্ষুদে শিক্ষার্থী। ফলাফলে এগিয়ে মেয়েরা, প্রকাশিত ফল বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০১৭ সালের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় অংশকারীদের মধ্যে ১২ লাখ ৯৮ হাজার ৭৭৮ জন ছাত্র বা ৪৬ দশমিক ২৮ শতাংশ। আর ছাত্রীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৭ হাজার ৩১৮ জন বা ৫৩ দশমিক ৭২ শতাংশ। অংশ নেওয়ার দিক থেকে ছাত্রীদের সংখ্যা বেশি ছিল ২ লাখ ৮ হাজার ৫৪০ জন।
ডিআরভূক্ত ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে মোট ২৬ লাখ ৯৬ হাজার ২১৬ জন ছাত্র-ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে ১২ লাখ ৩৯ হাজার ১৮১ জন ছাত্র (৪৫.৯৬ শতাংশ) এবং ১৪ লাখ ৫৭ হাজার ৩৫ জন ছাত্রী (৫৪.০৪ শতাংশ)। এদের মধ্যে মোট ২৫ লাখ ৬৬ হাজার ২৭১ জন সব বিষয়ে উত্তীর্ণ হয়। উত্তীর্ণদের মধ্যে ছাত্র ছিল ১১ লাখ ৭৬ হাজার ৩৩০ জন বা ৪৫ দশমিক ৮৪ শতাংশ। আর ছাত্রী পাস করেছে ১৩ লাখ ৮৯ হাজার ৯৪১ জন বা ৫৪.১৬ শতাংশ। সব বিষয়ে উত্তীর্ণদের তালিকায় ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রীরাই এগিয়ে। পাশের হারের দিক থেকেও মেয়েরা এগিয়ে। এ বছর ছাত্রদের পাশের হার ৯৪ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং ছাত্রীদের ৯৫ দশমিক ৪০ শতাংশ।

গোপালগঞ্জে পাসের হার সবচেয়ে বেশি, এবারের ফলাফলে গোপালগঞ্জ জেলায় পাসের হার সবচেয়ে বেশি। এ জেলায় পাসের হার ৯৯ দশমিক ৩৯ শতাংশ। সবচেয়ে কম পাসের হার ঝালকাঠিতে। এই জেলায় পাস করেছে ৮৭ দশমিক ৮৮ শতাংশ শিক্ষার্থী। আর সারা দেশের উপজেলাগুলোর মধ্যে তিনটিতে শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে। সবচেয়ে কম পাসের হার যশোরের কেশবপুর উপজেলায়। এখানে পাস করেছে ৭১ দশমিক ২০ শতাংশ।
যেভাবে জানা যাবে ফলাফলঃ প্রাথমিক ও ইবতেদায়ীর ফল প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের ওয়েবসাইট (www.dpe.gov.bd) এবং টেলিটকের ওয়েবসাইটে (www.teletalk.com.bd) পাওয়া যাবে।
এছাড়াও যেকোনো মোবাইল থেকে DPE লিখে স্পেস দিয়ে থানা/উপজেলার কোড লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৭ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করেও প্রাথমিকের ফল জানা যাবে। ইবতেদায়ীর ফল পেতে EBT লিখে স্পেস দিয়ে থানা/উপজেলার কোড লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৭ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করতে হবে।
জেএসসি-জেডিসির ফল পেতে www.educationboardresults.gov.bd ছাড়াও শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। এছাড়া JSC/JDC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৭ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করলে ফিরতি এসএমএসে ফল জানা যাবে।


Shares