প্রচ্ছদ


ভারতে ৮ম শতাব্দীতে নির্মিত দুর্গ গভালিয়র ফোর্ট!

01 January 2018, 22:38

সুমন দে
Share
This post has been seen 434 times.

সুমন দেঃ ভারতে অনেক দুর্গ ও প্রাসাদ রয়েছে যা তাদের সৌন্দর্যের জন্য সারা বিশ্বে বিখ্যাত। আমরা এমন একটি ভারতবর্ষের দুর্গ সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি যা ভারতের গৌরব বলে মনে করা হয়। মধ্য প্রদেশে অবস্থিত, গভালিয়র ফোর্ট মধ্যযুগীয় স্থাপত্যের সবচেয়ে আশ্চর্যজনক নমুনাগুলির একটি। বিশ্বাস করা হয় যে, এই দুর্গটির একটি দুর্গের দখল অন্য দুর্গে আছে। এই দুর্গে যা কিছু রয়েছে তার সঠিক তথ্য, যা এখন পর্যন্ত কারো কাছে পাওয়া যায় নাই ।

এই দুর্গ নিরাপদ পাথরের পাকার সঙ্গে দুটি অংশ বিভক্ত করা রয়েছে । ৮ম শতাব্দীতে নির্মিত এই দুর্গটি দেখতে ভ্রমণকারীরা দেশ ও বিদেশ থেকে আসেন ।

দুর্গ সম্পর্কে কিছু অন্য আকর্ষণীয় বিষয়গুলি জানিঃ ৮ এর শতকে নির্মিত এই দুর্গ ৩ বর্গ কি:মি: ব্যাসার্ধের মধ্যে ছড়িয়ে রয়েছে । গফচছাল পাহাড়ে অবস্থিত এই দুর্গটির উচ্চতা প্রায় ৩৫০ ফুট । ভিতরে অনেক ঐতিহাসিক স্মৃতিস্তম্ভ আছে, বুদ্ধ-জৈন মন্দির, যেমন গুজরাটি মহল, মানসিং মহাল, জাহাঙ্গীর মহল, করণ মহল, শাহজাহান মহল ইত্যাদি প্রাসাদগুলি।

এই দুর্গতে যাওয়ার দুটি উপায় আছে। গল্ফার গেটে হাঁটার মাধ্যমে শুধুমাত্র একমাত্র পৌঁছানো যায়। অন্যদিকে যখন আপনি উওয়ার গেট থেকেও গাড়ি দিয়ে যেতে পারেন। হাতির সেতুর নামকরণ করা হয় এই দুর্গের প্রধান প্রবেশদ্বার, সরাসরি মন্দির প্রাসাদ দিকে এগিয়ে গেছে । এ ছাড়াও, এখানে পুকুরের পানি পান করে মানুষকে সব রোগ দূর হেয় যায় বলে কথিত রয়েছে ।

লাল বেলে পাথর দিয়ে নির্মিত এই দুর্গ দেশের বৃহত্তম দুর্গগুলির একটি এবং এটি ভারতীয় ইতিহাসে একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান বেল থ্যাত ।

এ ছাড়াও, আপনি প্রত্নতাত্ত্বিক জাদুঘরে একটি রূপান্তরিত প্রাসাদ মধ্যে বিরল ভাস্কর্য সংগ্রহ দেখতে পােবন । প্রথম এ সকল মূর্তি বা ভস্কর্য শুধুমাত্র নিকটবর্তী এলাকায় দেখতে পাওয়া যায়। রাতে আপনি এই প্রাসাদ বিভিন্ন রং এর আলো সঙ্গে চমক দেখতে পােবন।

৩৫০ ফুট উচ্চতায়  নির্মিত, গল্ভালের দুর্গ দূরে দেখতে আসেন পর্যটকরা।

Share


Shares