প্রচ্ছদ


কলকাতায় বর্ষবরণে নারী নিগ্রহের অভিযোগ

02 January 2018, 09:59

নিজস্ব প্রতিবেদক
Share
This post has been seen 182 times.

বর্ষবরণের রাতে কলকাতা শহরে গভীর রাতে তিলোত্তমার রাস্তায় ফের নারী নিগ্রহের অভিযোগ উঠল ৷ রোববার গভীর রাতের ওই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তদের চিহ্নিত করা যায়নি ৷ তবে অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে৷

কলকাতা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রোববার রাতে নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে একটি পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল পিসি চন্দ্র গার্ডেনে৷ সেখানেই হাজির হয়েছিলেন নেতাজিনগরের বাসিন্দা বছর ৩৬-এর ওই মহিলা ৷ সঙ্গে তাঁর স্বামীও ছিলেন ৷ পার্টি শেষের পর গভীর রাতে তাঁরা একসঙ্গে সেখান থেকে গাড়িতে বাড়ি ফিরছিলেন ৷ ওই দম্পতির অভিযোগ,  ঘটনার সূত্রপাত গরফা থানার সাঁপুইপাড়া থেকে ৷ তাঁদের সামনে থাকা একটি গাড়ি রাস্তায় সাপের মতো এঁকেবেঁকে চলছিল ৷ বহুবার সংকেত দেওয়া সত্ত্বেও ওই গাড়িটি তাঁদের জায়গা ছাড়েনি ৷ পরবর্তী একটি সিগন্যালে সামনের গাড়িটি থামে ৷ পাশে গিয়ে থামে ওই দম্পতির গাড়ি ৷

মহিলার দাবি, তিনি গাড়ি থেকে নেমে ঘটনার প্রতিবাদ করেন ৷ সেই সময় গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন কয়েকজন যুবক ৷ প্রত্যেকেই মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন বলে ওই মহিলার অভিযোগ ৷ দু’পক্ষের মধ্যে তীব্র বচসা শুরু হয় ৷ বচসা চলাকালীনই তাঁর শ্লীলতাহানি করা হয় ৷ বচসা চলাকালীন ওই যুবকেরা ফের গাড়িতে উঠে যান ৷ তখন ওই মহিলা গাড়ি আটকানোর চেষ্টা করেন ৷ চালকের কলার চেপে ধরেন ৷ তখন চালক গাড়ি চালাতে শুরু করে ৷ এর ফলে ওই মহিলা গুরুতর জখম হন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে ৷

এর পর ওই মহিলা স্বামীর সঙ্গে গরফা থানায় যান ৷ সেখানে গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন ৷ তবে অভিযুক্তদের সম্পর্কে তিনি কোনও তথ্য দিতে পারেননি ৷ কিংবা গাড়ির নম্বরও বলতে পারেননি ৷ ফলে অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ৷

কলকাতা পুলিশের ডিসি (এসএসডি) রূপেশ কুমার জানান, ওই এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে অভিযুক্তদের সন্ধান করা হবে৷ তাদের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানি ও অপহরণের চেষ্টার মামলা রুজু হয়েছে ৷

অন্যদিকে বর্ষবরণের পার্টিতে গোলমালের অভিযোগ উঠেছে বিধাননগরে ৷ সেখানকার একটি শপিং মলে বর্ষবরণের পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল ৷ ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে সেই পার্টিতে প্রবেশাধিকার দেওয়া হয়েছিল৷ অংশগ্রহণকারীদের অভিযোগ, টাকা নেওয়া হলেও সেই মতো ব্যবস্থা করা হয়নি ৷ খাবার দেওয়া হয়নি ৷ এ নিয়ে গোলমাল হয় ৷ পরে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন বিক্ষুব্ধরা ৷ পরে পুলিশ আয়োজকদের মধ্যে সাতজনকে গ্রেফতার করে ৷

Share


Shares