প্রচ্ছদ


“দেব-বৃক্ষ” বহ্নি চক্রবর্তী’র মুক্তমত

07 January 2018, 00:19

বহ্নি চক্রবর্তী
This post has been seen 682 times.

রত্নগর্ভা ‘মা’ শব্দটি ব্যবহার করে আজকাল পদক সৃষ্টি হয়েছে ! আমি বহ্নি চক্রবর্তী বুঝি প্রত্যক মা হলেন রত্নময়ী । তা-না হলে আমাদের ভূমিষ্ট রহস্য ঈশ্বর প্রদত্ত সৃষ্টি হতো না !  রত্নগর্ভা র চাইতে দেখা উচিত কোন মা কতটুকু শান্তিতে আছেন তার সন্তান দের কাছে ? সবার আগে এই দিক টা খেয়াল রেখে পদক দেওয়া উচিত নয় কী ?

আমরা আজো সে যুগের কৌশল্যাকে মনে রাখি, সুপুত্র রামের কারণে, ‘মা’ মেরিকে জানি, মহাবতার যীশু খ্রিষ্টের মাতা বলে। ‘মা’ আমেনাকে ভুলিনি, মহানবী হযরত মুহম্মদ এর কারণে । আর এ যুগে ভুবনেশ্বরী দেবীকে চিনি কারণ, তিনি স্বামী বিবেকানন্দের ‘মা’ ছিলেন বলে । প্রভাবতী দেবীকে চিনি, কারণ তিনি নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসুর ‘মা’ বলে। ভগবতী দেবীকে চিনি, কারণ তিনি বিদ্যাসাগরের ‘মা’ ছিলেন। সারদা দেবীকে মনে রেখেছি, কারণ তিনি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গর্ভধারিণী ছিলেন । যুগে যুগে কত মহাপ্রাণ এসেছেন আমাদের পথ দেখানোর জন্যে। বারে বারে তাঁরা আমাদের বলেছেন, “যদি জীবন সার্থক করতে চাও, তাহলে এই পথে এসো।”

কোন মা কতটুকু শান্তি তে আছেন তা কিন্তু বিচার করি না, কারণ বলতে গেলে উপরে এসে পড়বে যে । একজন মায়ের শান্তির জন্য যে সন্তান তার সাধ্য মত চেষ্টা করে থাকে সেই সন্তান হলো রত্নপাল । আজ কাল মা হোক বাবা হোক বুড়ো হয়ে গেলে বোঝা ভাবে সন্তানরা। একজন মায়ের শিক্ষা এবং আর্শীবাদ হলো জীবন প্রবাহের মূল ধারা । বিজ্ঞানের মতে, সন্তান কেমন মানুষ হবে সেটা ৮৫% ভাগ নির্ভর করে মা-এর উপর। আর তা নির্ধারণ হয়ে যায় মায়ের গর্ভে সন্তান আসা এবং জন্মের ৫ বছরের মধ্যেই । মায়ের চিন্তা, কথা, ভালো লাগা- মন্দ লাগা, রুচি, আদর্শ, সন্তানের উপর দারুনভাবে প্রভাব ফেলতে থাকে গর্ভে থাকা অবস্থাতেই । মায়ের কষ্ট, তার কষ্ট । মায়ের আনন্দ, তার আনন্দ । মায়ের খাবার, তার খাবার । তাহলে মায়ের ইচ্ছা, তার ইচ্ছা হবে না কেনো !

শান্তিতে আছেন এই মাসি মা তার রত্নপাল দের কাছে । আমি উনার সন্তানদের মতো দেখি নাই, কি ভাবে মা কে শান্তি তে রাখতে হয় ? মা মানে হলো উনাদের কাছে দেব-বৃক্ষ । মাসিমার ৯ সন্তান / ৭তনয়/ ২তনয়া / নিজ স্হানে সবাই প্রতিষ্ঠিত আজ ।  উনার মতো শান্তিতে সব মা জাতি থাকুন এই প্রার্থনা করি ।  মাসিমা হলেন দেব-বৃক্ষ, এমন দেব-বৃক্ষ সৃষ্টি হোক সবার ঘরে ঘরে “দেব-বৃক্ষ” থেকেও অমৃত ফল ফলতে থাকুক সব জায়গায়।


Shares