প্রচ্ছদ


বাংলাদেশের লঙ্কা জয়, ফাইনালে টাইগাররা

16 March 2018, 23:09

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 528 times.

টসে জিতে রলিং নেয় টাইগাররা, ব্যাটে চড়ে ৭ উইকেটে ১৫৯ রানে থামল শ্রীলঙ্কা । নিদাহাস ট্রফিতে শুক্রবার শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশের লড়াই ফাইনাল নিশ্চিত করার। সে কারণেই বাঁ হাতের আঙুলের ইনজুরি শঙ্কা থাকলেও দলে যোগ দেন সাকিব আল হাসান। অধিনায়কের দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে টস জিতে আগে ফিল্ডিং শুরু করেন।

শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতার ৭০ বছর পূর্তিতে ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজের আয়োজন করে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড৷কিন্তু স্বাধীনতা সিরিজের ফাইনালেই নেই লঙ্কা৷লিগের শেষ ম্যাচে রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের সাক্ষী থাকল প্রেমাদাসা ৷ মাহমুদুল্লাহ ছক্কায় স্বপ্নপূরণ সাকিবদের৷চোট সারিয়ে সিরিজে প্রথমবার তথা ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে নামেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ৷ কিন্তু ম্যাচের নায়ক মাহমুদুল্লাহ ৷ শেষ ওভার বাংলাদেশের জয়ের জন্য দরকার ছিল ১২ রান ৷ প্রথম দু’ বলে কোনও রান না-হওয়ায় চাপে ছিল বাংলাদেশ ৷ কিন্তু পরের তিন বলেই ম্যাচ পকেটে পুরে নেয় বাংলাদেশ ৷ সৌজন্যে মাহমুদুল্লাহের দুরন্ত ব্যাটিং ৷ ১৫৯ রান তাড়া করতে নেমে এক বল বাকি থাকতে দু’ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ ৷

তবে বাংলাদেশের স্মরণীয় জয়ের ঠিক আগে এক প্রস্থ নাটক হয় প্রেমাদাসায়৷শেষ ওভারে উদানার প্রথম দু’টি ডেলিভারি ব্যাটসম্যানের কাঁধের উপর দিয়ে গেলেও আম্পায়ার নো-বল না-দেওয়ায় ক্ষুব্ধ বঙ্গশিবির৷ক্যাপ্টেন সাকিব দুই ব্যাটসম্যানকে মাঠ থেকে ডেকে নেন৷কিন্তু শেষ পর্যন্ত দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন মাহমুদুল্লাহ৷১৮ বলে দু’টি ছক্কা ও তিনটি বাউন্ডারি মেরে ৪৩ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি৷ এর আগে ইনিংস শুরু করে ৫০ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন তামিম ইকবাল৷২৫ বলে ২৮ রান করেন মুশফিকুর রহিম৷

১ বল হাতে রেখেই শ্রীলঙ্কার দেওয়া ১৬০ রান তুলে নেয় বাংলাদেশ ।  মাহমুদুল্লাহ’র ব্যাটিং নৈপুণ্যে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ । শেষ ওভারে বাংলাদেশের জয়ের জন্য বাংলাদেশের দরকার ছিল ১২ রান ।  হাতে তখন মাত্র ৩ উইকেট । স্ট্রাইকে মুস্তাফিজুর রহমান । বোলিংয়ে ইসুরু উদানা । প্রথম বলে কোনও রান নিতে পারলেন না মুস্তাফিজ । পরের বলে আউট হয়ে ফিরে গেলেন কাটার মাস্টার । তখন ৪ বলে দরকার ১২ রান । স্ট্রাইকে মাহমুদুল্লাহ। উদানার তৃতীয় বলে চার মারলেন মাহমুদুল্লাহ। চতুর্থ বলে ঝুঁকি নিয়ে ২ রান নিলেন। এরপর পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকিয়ে জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন এই সাইলেন্ট কিলার।


Shares