প্রচ্ছদ


আসামে এসআরসি নিয়ে মমতার উদ্বেগ

09 April 2018, 11:18

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 249 times.

অাসামে নাগরিকপঞ্জী তৈরি নিয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের । মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, তালিকায় ইচ্ছে করে বাঙালিদের নাম বাদ দেওয়া হচ্ছে । ন্যাশনাল রেজিষ্ট্রার অফ সিটিজেন (এনআরসি) বা জাতীয় নাগরিকপঞ্জীকে ব্যবহার করে অাসাামে ‘বাঙালি হঠাও’-র অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের । বীরভূমের সভায় এ নিয়ে ভিটেমাটি থেকে বাঙালিদের উচ্ছেদ করতেই এই পরিকল্পনা বলে অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর ।

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের আগে যে কোনও প্রামাণ্য নথি দেখাতে পারলেই ভারতীয় হিসাবে প্রমাণ করা যাবে । এই নির্দেশিকা মেনেই কাজ চালাচ্ছে সমীক্ষক সংস্থা । প্রথম দফায় তালিকায় ১ কোটি ৯০ লক্ষ মানুষের পর আরও দুটি দফায় দেড় কোটি মানুষের নাম নথিভুক্ত হতে চলেছে। নাগরিকপঞ্জীতে নাম না থাকলেও ভারতীয় নাগরিকদের চিন্তার কারণ নেই । আশ্বাস অাসাম প্রশাসনের।

মমতা বলেন, “অাসামে বাঙালি হঠানো শুরু হয়েছে ৷ ইচ্ছে করে মানুষের নাম বাদ দেওয়া হচ্ছে ৷ অাসামে গন্ডগোল হলে বাংলাতেও প্রভাব পড়বে ৷ অাসামে কোনও বাঙালির বঞ্চনা মানব না ৷ আমাদের কারও সঙ্গে এ রকম করবেন না৷ আগুন নিয়ে খেলবেন না৷ মানুষের গায়ে হাত পড়লে ছেড়ে দেব না৷ কাজের চেয়ে রাজনীতিই বেশি হচ্ছে৷”

নাগরিকপঞ্জী নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে অাসামবাসীর। আশ্বস্ত করতে উদ্যোগী হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনেওয়াল । একই পরামর্শ দিচ্ছে অগপ কিংবা আসুর মতো সংগঠনও । তাঁদের বক্তব্য, মমতার অভিযোগের ভিত্তি নেই। ‘আসু’-র মুখ্য পরামর্শদাতার সমুজ্বল ভট্টাচার্য জানান, প্রথম দফায় নাম না থাকলেও চিন্তার কোনো কারণ নেই । প্রথম দফায় পর আরও দুই দফায় তালিকা প্রকাশ হবে । তখন নিশ্চয় নাম থাকবে। ভারতীয় হলে তাঁর নাম বাদ পড়বে না । সেইভাবেই কাজ হবে বলে আমরা আশাবাদী ৷



Shares