প্রচ্ছদ


খালেদা জিয়া কারাগারে গুরুতর অসুস্থঃ বিএনপি

15 April 2018, 16:51

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 322 times.

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে গুরুতর অসুস্থ বলে দাবি করেছেন দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ১৫ এপ্রিল, রবিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘কারাগারে অসুস্থ খালেদা জিয়াকে এখন পর্যন্ত কোনো চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে না। খালেদা জিয়ার এক্স-রে রিপোর্টে তার ঘাড়ে ও কোমরের হাড়ে সমস্যা আছে বলে জানিয়েছে সরকারি মেডিকেল বোর্ড। এমতাবস্থায় সরকারি মেডিকেল বোর্ড মামুলি প্রহসনের এক্সরে ও রক্ত পরীক্ষা করে ফিজিওথেরাপির সুপারিশ করেছে।’

রিজভী বলেন, ‘এমআরআইসহ উন্নত পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া শুধু এক্স-রে ও রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে খালেদা জিয়ার সুনির্দিষ্ট ও সঠিক রোগ নির্ণয় সম্ভব নয়। দীর্ঘদিন ধরে হাঁটু ও চোখের সমস্যায় ভুগছেন তিনি। খালেদা জিয়ার দুই হাঁটু প্রতিস্থাপন করা হয়েছে এবং সম্প্রতি চোখের অপারেশনও হয়েছে। পাশাপাশি তাকে কারাগারে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রাখায় আরও বেশকিছু শারীরিক সমস্য দেখা দিয়েছে তার।’

তিনি বলেন, ‘যেদিন পিজি হাসপাতালে আনা হয়েছিল, সেদিন খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের ডাকা হলেও তাদেরকে চিকিৎসাসেবার সুযোগ দেওয়া এবং কোনো পরামর্শ নেওয়া হয়নি। তিলে তিলে নিঃশেষ করার জন্যই ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে পরিকল্পিতভাবে সাজা দিয়ে তাকে কারাবন্দী করে এখন চিকিৎসার সুযোগও দেওয়া হচ্ছে না।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘সরকারি হুকুমে কারসাজিমূলকভাবে বেগম জিয়ার জামিনকে স্থগিত করা হয়েছে। কারাগারে খালেদা জিয়ার সাথে তার ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজনদের দেখা করতেও বাধা দেওয়া হচ্ছে। এসব ঘৃন্য চক্রান্ত বাদ দিয়ে তাকে অবিলম্বে মুক্তি দিন। খালেদা জিয়ার ইচ্ছানুযায়ী তার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করুন।’

রিজভী বলেন, ‘‘গতকাল (১৪ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পহেলা বৈশাখের এক অনুষ্ঠানে বলেছেন ‘অশুভ শক্তি যেন আর ক্ষমতায় না আসতে পারে।’ এখন জনগণ মনে করে দেশের সবচেয়ে বড় অশুভ শক্তি বর্তমান মহাজোট সরকার। মানুষ দিন গুনছে এই অশুভ শক্তির পতনের।”

তিনি আরও বলেন, “গতকাল প্রধানমন্ত্রী পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে কবিগুরুর ‘১৪০০ সাল’ কবিতাটি আওড়িয়েছেন। আমি শুধুুু প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে এইটুকু বলতে চাই বর্তমান প্রেক্ষাপটে ওই কবিতাটি এখন কীভাবে গৃহীত হচ্ছে সেটি তিনি উপলব্ধি করতে পারেননি। তবে ইংরেজ কবি উইলিয়াম ব্লেক-এর একটি কবিতা শেখ হাসিনার এই দুঃসময়ের জন্য প্রযোজ্য।’’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আফজাল এইচ খান, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, আব্দুল আউয়াল খান, নির্বাহী কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম, ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাক প্রমুখ।


Shares