প্রচ্ছদ


জিসিসি নির্বাচনে লক্ষাধিক তরুণ ভোটার…

19 April 2018, 09:56

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 314 times.

স্থানীয় বিশ্লেষকরা বলছেন, গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকায় ৫টি পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়, তিনটি সরকারি কলেজসহ অর্ধশতাধিক বেসরকারি কলেজ রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভোটার রয়েছেন অনেকেই। এদের অধিকাংশই আবার বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত। কোনো প্রার্থীর পক্ষেই শিক্ষিত এবং সচেতন এসব ভোটারের মন জয় করা খুব একটা সহজ হবে না। এ ছাড়া সিটি করপোরেশন এলাকায় বিভিন্ন কলকারখানার শ্রমিক, ব্যবসায়ী ও নানা পেশায় কাজ করছেন লাখো তরুণ। এদের মধ্য থেকেও অনেকে এবার ভোটার হয়েছেন। যে মেয়র প্রার্থী তাদের আকৃষ্ট করতে পারবেন, ভোটের লড়াই শেষে তার মুখেই ফুটবে হাসি।

৫ বছরের ব্যবধানে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের (জিসিসি) ভোটার বেড়েছে এক লাখেরও বেশি। তাদের মধ্যে অধিকাংশই তরুণ এবং বিভিন্ন কলেজ-বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। ১৫ মে’র নির্বাচনে এই তরুণ ভোটাররা বড় ‘ফ্যাক্টর’ হয়ে দাঁড়াবে বলে মনে করা হচ্ছে। বিষয়টি মাথায় রেখেই নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন মেয়র প্রার্থীরা। আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম এবং বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার উভয়েই তরুণ ভোটারদের মন জোগাতে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। অন্যদিকে তরুণ ভোটারদের চাওয়া- মেয়রের আসনে বসুক সৎ ও দক্ষ একজন ব্যক্তি।

রিটার্নিং কর্মকর্তার দেয়া হিসাব মতে, এবার নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ৩৭ হাজার ৭৩৬ জন। গত নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ছিল ১০ লাখ ২৬ হাজার ৯৩৮ জন। এ হিসাবে নতুন ভোটার বেড়েছে ১ লাখ ১০ হাজার ৭৯৮ জন।

তরুণ ভোটারদের ব্যাপারে বিএনপি প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার বলেন, রাজনীতিই হচ্ছে তরুণদের জন্য। তরুণরাই আগামী দিনের নাগরিক। একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে তাদের সুখ, স্বাচ্ছন্দ্য, ভালো লাগা এবং স্বপ্ন বাস্তবায়নেই কাজ করব আমি।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এখানে যারা তরুণ রয়েছে তাদের মেধা ও শ্রমকে কাজে লাগাতে চাই আমি। তবে প্রবীণরাও থাকবেন আমার সঙ্গে। প্রবীণদের জ্ঞান, বুদ্ধি এবং তরুণদের সাহসকে কাজে লাগিয়ে গাজীপুরকে একটি আদর্শ নগরীতে পরিণত করার পরিকল্পনা রয়েছে আমার।


Shares