প্রচ্ছদ


স্থগিত করল নোবেল কমিটি ২০১৮তে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার

05 May 2018, 03:11

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 468 times.

বেশ কিছুদিন ধরেই নোবেল কমিটির জনৈকা প্রাক্তন সদস্যের স্বামীর যৌন কেলেঙ্কারি নিয়ে তোলপাড় গোটা সুইডেন । যার জেরে ওই মহিলা সদস্যসহ একে একে পদত্যাগ করেছেন কমিটির ৬ সদস্য । সেই তালিকায় রয়েছেন স্থায়ী সচিব সারা দানিয়াস । গত নভেম্বরে বিশ্বব্যাপী ‘মিটু’-প্রচারের ঢেউ আছড়ে পড়ে নোবেল-সংস্থার দুয়ারে ।

১৭৮৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় সুইডিশ অ্যাকাডেমি । এর আগে, সাতবার কমিটি সাহিত্য পুরস্কার স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল—১৯১৫, ১৯১৯, ১৯২৫, ১৯২৬, ১৯২৭, ১৯৩৬ এবং ১৯৪৯ । এর মধ্যে পাঁচবার পরের বছরের সঙ্গে আগের বছরের পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল । এবার ২০১৮ সালের সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার ঘোষণা স্থগিত করল নোবেল কমিটি । ৭৫ বছরে প্রথমবার । প্যানেলের এক সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠায় পিছিয়ে দেওয়া হল ২০১৮ সালের নোবেল সাহিত্য পুরস্কার । দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে শেষবার নোবেল সাহিত্য পুরস্কার বাতিল করেছিল নোবেল কমিটি । সুইডিশ অ্যাকাডেমি জানিয়েছে, ২০১৯ সালের সঙ্গে ঘোষণা করা হবে ২০১৮ বিজেয়ীর নাম ।

স্থানীয় সংবাদপত্র ‘দাগেন্স নিতার’-এ প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, সুইডিশ সংস্কৃতির ক্ষেত্রের জনপ্রিয় তথা প্রভাবশালী মুখ জাঁ-ক্লদ আহনোর বিরুদ্ধে অন্ততপক্ষে ১৮ জন মহিলা । ‘মিটু’-প্রচারের মাধ্যমে মহিলারা জানান, বিভিন্ন সময় তাঁদের জাঁ-ক্লদের হাতে ধর্ষণ, শ্লীলতাহানি এবং যৌন-হয়রানির শিকার হতে হয়েছে । তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অ্যাকাডেমি পুরস্কার বিজয়ী তথা কবি কাতারিনা ফ্রস্টেন্সনের স্বামী জাঁ-ক্লদ । কিন্তু, তাতে বিতর্ক থামেনি, উল্টে বিগত কয়েক সপ্তাহে তা ক্রমশ বেড়ে গেছে ।

অন্তর্বর্তীকালীন স্থায়ী সচিব অ্যান্ডার্স ওলসন জানান, বর্তমান সদস্যরা পুরো পরিস্থিতির সঙ্গে অবগত । সকলেই একমত যে, চারদিক থেকে খোলনলচে পাল্টে দেওয়া এবং দীর্ঘমেয়াদী পরিবর্তনের যে দাবি উঠেছে, তা বাস্তবইয়িত হোক ।



Shares