প্রচ্ছদ


আমি বাঁচতে চাই 

11 June 2018, 00:35

তানভির শাহরিয়ার
This post has been seen 385 times.

আকরাম কমিশনারের মৃত্যুর পর থেকে নিজের ভেতর কিরকম এক হ্যালুসিনেশনের মত হচ্ছে । মৃত্যু চিন্তা মাথার ভেতর ঝেঁকে বসেছে ।রমজানমাস বিকেলের দিকে একটু ঝিমুনির মত আসে । সেদিন বিকেলে ঠিক  এরকম হালকা  ঘুম দিয়ে  জেগে বালিশের  পাশে রাখা  মোবাইল  হাতে নিয়েপত্রিকা দেখার  সময় হঠাৎ আকরাম সাহেবের ঐ ভিডিওটা চোখে পড়ে । ঘুমের ঘোরে  প্রথমে বুঝিনি ,  গুলির শব্দের  সাথে প্রচন্ড এক শক খেয়ে উঠেবসি । আমাদের এখানে তখনও মোটামোটি ঠান্ডা । কয়েক মিনিট পর  আকস্মিকতা  কাটিয়ে উঠে  দেখি  সারা শরীর ঘামে ভিঁজে একাকার !

আধোঘুমের মধ্যে ভয় ,হ্যালোসিনেশন বা আফটার শক্ যাই হোক এরপর টানা তিনদিন ঘুমের মধ্যে স্বপ্নে দেখি আব্বা আমাকে খুব ধমকাচ্ছেনআল বলছেন দৌঁড়া দৌঁড়া । টানা তিনদিন একই স্বপ্ন দেখে জেগে উঠি ।

সেদিনের পর থেকে জীবনের প্রতি মায়া যেন অনেকটা বেড়ে গেছে প্রচন্ড রকমের বেচে থাকার আকুতি তৈরী হয়েছে ভেতরে । আমি বাঁচতে চাই।অন্তত স্বাভাবিক মৃত্যুর আগ পর্যন্ত বেচে থাকতে চাই  অনেককে বলতে  শুনি রোগ-শোকে  আক্রান্ত  হয়ে  বেঁচে থাকার  চেয়ে তা  প্রকৃতির  কাছে তুলে  নেয়ার আকুতি । আমার উল্টোটা । আমি বাচতে চাই  রোগ -শোক-জরা-বার্ধক্য সব কিছু পেছনে রেখে ।

আমি বাঁচতে চাই- আমার চোখ যতক্ষন দেখার ক্ষমতা রাখবে , আমি বাঁচতে চাই-এই প্রাণ  যতক্ষন  প্রকৃতির  ভালোবাসা বুঝার ক্ষমতা রাখবে ।

আমি বাঁচতে চাই একটা পুর্ণিমা জোছনার জন্য , একমুঠো সবুজের জন্য । এই পাহাড় ,  এই সবুজ ,  এই সাগর  দেখে দেখে আমি বাঁচতে চাই ।

হয়তো ঘাসের ডগায় লেগে থাকা এক ফোঁটা শিশিরের ঝলক দেখার জন্য বাঁচতে চাই । আমি অটোয়া -প্যারিস-হামবোর্গের রাস্তায়  রাস্তায় হেটে  বেড়ানোর জন্য বাঁচতে চাই । আমি সুরমা-কুশিয়ারার বুকে জেগে থাকা চাদের সাথে ভেসে বেড়ানোর জন্য বাঁচতে চাই ।

আমি বাঁচতে চাই  হামবুর্গ , নিউক্যাসল্ , নেপোল থেকে প্রাগ , বুখারেষ্ট মেসিডোনিয়া নর্থ সি থেকে মেডিটেরিয়ান কিংবা ব্ল্যাক সি , লোরেন্সেমিকেলাঞ্জেলোর ‘ডেভিড’ দেখার জন্য হলেও ।

আমি তাশখন্দের সেই মিনার যেখানে বসে গালিব লিখেছিলেন বিখ্যাক শায়েরী  “ইশ্ক্-বসে তবীয়ত্-নে জিস্ত্-কা মজা পায়া দর্দ-কী দবা পাঈ, দর্দ-এ বেদবা পায়া “  সেই মিনারটার পাশে বসে শুনার জন্য হলেও বাঁচতে চাই ।

আমি বাঁচতে চাই রোমে পিয়েতা আর সিসটাইন চ্যাপেলের লাস্ট জাজমেন্ট দেখার জন্য । আমি ভোরের  আলোয় স্ক্যানেল শহরে  দাড়িয়ে অরোরান  স্ফুলিং  দেখার জন্য বাচতে চাই । আমি বার্লিনের সেই ভাঙ্গা প্রাচীরের স্তুপে জমা ইতিহাসের সেই বোহেমিয়ানদের হাসি দেখার জন্য বাঁচতে চাই ।

শুনেছি চীনের মহা প্রাচীরে দাড়িয়ে নাকি চাঁদকে ছোঁয়া যায় । আমি বেচে থাকতে  চাই ঐ চাঁদকে  ছোঁয়ে দেখার  জন্য হলেও ।

শিশির কণা যখন ভোরের আলোয় চা-পাতার কুড়িঁতে  লেগে থেকে মিষ্টি ঝকঝকে আলোর হিরে-দানা তৈরী  করে,  ওটা ছুঁয়ে দেখার  জন্য হলেওআমি  বাঁচতে চাই ।

এই ছোটছোটা চাওয়াগুলি কি শুধুই আমার ? আপনারও তো আছে , আকরাম সাহেবেরও ছিল নিশ্চয় । নিশ্চয় কেনো ,অবশ্যই ছিল । আমার -আপনার কিংবা  আকরাম সাহেবের  চাওয়ায় ব্যঘাত দেয়ার  অধিকার কারোও নেই । আমি বাঁচব আমার মত করে , আমার স্বপ্ন-চাওয়া-আশার ভেতর । আমার কাছে এখন বেচে থাকাটাই আসল । অথর্ব একপিন্ড মাংস স্তুপ হয়ে বেঁচে থাকার এ আকুতি আমার । গুলি করে   রাস্তার পাশে ফেলে রাখার অধিকার আমি কাউকে দেই নি ! মৃত্যু চাওয়ার অধিকার একমাত্র আমার একান্ত !

শুভ কামনার সাথে সাথে ভয়-ভীতিহীন জীবন আর স্বাভাবিক মৃত্যুর অধিকার চাওয়া আপনাদের কাছে ।


Shares