প্রচ্ছদ


সব দলের অংশগ্রহণ ইতিবাচক : যুক্তরাষ্ট্র

02 January 2019, 16:51

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 189 times.

যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দেশগুলো বাংলাদেশে সদ্যসমাপ্ত নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণকে ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখেছে । অর্থনৈতিক উন্নয়নে সরকারের সঙ্গে কাজ চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে । তবে ভোটে যেসব অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে, তার ‘স্বচ্ছ’ তদন্ত ও চেয়েছে তারা । বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য অনুরোধ রেখেছে নির্বাচন কমিশনের প্রতি । বাংলাদেশের জনগণের স্বার্থে পারস্পরিক মতবিরোধ অবসানে রাজনৈতিক দলগুলো এগিয়ে আসবে বলে তারা প্রত্যাশা করছে।

অন্যদিকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) বাংলাদেশে গণতন্ত্র, মানবাধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিতের প্রত্যাশা রেখেছে।

গত রোববার একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হয়। ভোটের দিন সহিংসতায় অন্তত ১৭ জনের মৃত্যু হয়।

এই নির্বাচনে তিনশটির মধ্যে মাত্র ৭টি আসন পাওয়া বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ভোট ডাকাতির অভিযোগ তুলে পুনর্নির্বাচনের দাবি তুলেছে । তবে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা।
বিএনপিসহ অধিকাংশ দলের বর্জনের মধ্যে অনুষ্ঠিত দশম সংসদ নির্বাচন নিয়ে স্পষ্ট অসন্তোষ জানিয়েছিল পশ্চিমা দেশগুলো। কিন্তু এবারের নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ ছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের এক বিবৃতিতে ২০১৪ সাল পেরিয়ে এবারের নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণকে ‘ইতিবাচক অগ্রগতি’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ব্রাসেলস থেকে ইইউর বিবৃতিতে বলা হয়, ভোটারদের উপস্থিতি এবং বিরোধীদের অংশগ্রহণ বাংলাদেশে গণতন্ত্রের প্রতি জনগণের স্পীহার প্রতিফলন ঘটেছে।

ইইউ বলেছে, এখন ভোট পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষের উচিৎ হবে যেসব অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে, ‘পূর্ণ স্বচ্ছতার’ সঙ্গে তা পরীক্ষা করে দেখা।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মার্ক ফিল্ড বিবৃতিতে বাংলাদেশের নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণে সন্তোষ জানিয়ে বলেছেন, অনিয়মের বিশ্বাসযোগ্য কিছু অভিযোগ তার গোচরে এসেছে। এর মধ্যে রয়েছে বিরোধী জোটের নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার, তাদের প্রচারে বাধা, ভোট দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা তৈরি।

নির্বাচন নিয়ে যত অভিযোগ এসেছে, তার সবগুলোর পূর্ণ ও স্বচ্ছ তদন্ত চেয়েছেন তিনি।


Shares