প্রচ্ছদ


পুলওয়ামায় আত্মঘাতী বিস্ফোরণের উচিত জবাব দেবে ভারত

17 February 2019, 03:25

নিজস্ব প্রতিবেদক
This post has been seen 269 times.

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিতে উদ্যোগী বিজেপি ৷ দলের সদর দফতরে বসেছে কোর কমিটির বৈঠক হয় ৷ সেখানে হাজির রয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও অমিত শাহ, রাজনাথ সিং, নিতীন গড়কড়ি সহ অন্যান্যরা ৷

মনে করা হচ্ছে, পাকিস্তানকে উচিত শিক্ষা দিতে সব চেয়ে বড় কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে মোদী অমিত শাহ জুটি ৷

সূত্রের খবর, কাশ্মীরে জঙ্গিহানার উচিত শিক্ষা দেওয়ার জন্যই সরকারকে কড়া মনোবাব নিতেই হবে ৷ সেক্ষেত্রে পাকিস্তানে ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়া ছাড়া উপায় নেই ৷ এই উদ্যোগ নিতে গেলে যুদ্ধের রাস্তা বেছে নিতে হবে ভারতকে ৷

বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় ঘটে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ৷ শহিদ হন ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান ৷ কড়া পতিক্রিয়া জানায় নয়াদিল্লি ৷ প্রতিবেশী পাকিস্তানকে বিশ্বের আঙিনায় এক ঘরে করার উদ্যোগী হয় ভারত ৷ সেই পরিপ্রেক্ষিতে শনিবার হয় সর্বদলীয় বৈঠক ৷ সেখানেই উপস্থিত সব রাজনৈতিক দল জাতীয় স্বার্থে মোদী সরকারের সঙ্গে রয়েছি বলে সম্মতি দেয় ৷ তারা জানায় দেশের সুরক্ষায় কোনও আপস নয় ৷

দেশের ইতিহাসে সবথেকে বড় জঙ্গি হামলার পর শুক্রবার সেনাকে পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে৷ জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কবে, কখন ও কীরকম অভিযান চালানো হবে তা ঠিক করবে সেনা৷ একটি অনুষ্ঠানে এসে এমনটাই জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ বলেন, ‘‘সন্ত্রাসবাদ দমনে ভারতীয় সেনাকে পুরো স্বাধীনতা দেওয়া হল৷ কী কায়দায় জবাব দেওয়া হবে তা ঠিক করবে নিরাপত্তা বাহিনী।’’

পাশাপাশি মোদী পুলওয়ামার হামলাকারীদের সতর্ক করে দেন৷ বদলার সুরে জানান, হামলাকারীরা বড় ভুল করেছে৷ এর চরম মূল্য তাদের চোকাতে হবে৷ মোদী বলেন, ‘‘জঙ্গি ও তাদের মদতদাতাদের বলতে চাই তারা বড় ভুল করেছে৷ এর চরম মূল্য চোকাতে হবে৷ এই হামলার জন্য যাদের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তাদের পাশে আছে সরকার৷ তারা বিচার পাবে৷’’

এই প্রেক্ষাপটে পকিস্তানকে উচিত শিক্ষা দিতে মরিয়া মোদী সরকার ৷ বার বরা বলা সত্ত্বেও হুঁশ ফিরছে না তাদের ৷ ভারত মনে করছে এটাই উচিত সময় কড়া সিদ্ধান্ত নেওয়ার ৷ ফলে এই বৈঠক খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা ৷

অন্যদিকে, সামনেই দেশের সপ্তদশ লোকসভা ভোট ৷ এই পরিস্থিতিতে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকেও পিছিয়ে দেওয়াটা জরুরি ৷ এই কারণে দেশে জরুরি অবস্থার সম্ভাবনাও প্রবল হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে ৷ এই কড়া সিদ্ধান্ত নিতেই বিজেপি হেডকোয়ার্টারে চলে বৈঠক ৷- খবর ভারতীয় বাংলা অনলাইন গণমাধ্যম ।


Shares